Categories
দেশের বাইরে দেশে

উল্টো বাড়ির সবকিছুই উল্টো

3178734200000578-3460026-An_upside_down_house_costing_600_000_425_200_has_been_erected_in-a-24_1456231690690

উল্টো রাজার উল্টো দেশে সবকিছুই নাকি উল্টো। রাত্রিতে বেজায় রোদ, দিনে চাঁদের আলো। আকাশটা সবুজ শ্যামল, গাছের পাতা নীল। ডাঙ্গায় চরে রুই-কাতলা, জলের মাঝে চিল… এমন এক দেশের খোঁজ না মিললেও পাওয়া গেল এমন এক বাড়ির দেখা। যেখানে সবই উল্টো।

তাইওয়ানের সেই ঝাঁ চকচকে বাড়ি দেখতে এখন উপচে পড়ছে ভিড়। সাধারণ একটা তিন তলা বাড়ি। আর পাঁচটা ওয়েল ফার্নিশড বাড়ির মতোই বেডরুম থেকে ডাইনিং রুম, ওয়াশ রুম – সবই পরিপাটি করে সাজানো গোছানো। তাহলে এত ভিড় কেন হচ্ছে?

আসলে সাধারণ এই বাড়িটি একটি কারণে হয়ে উঠছে অসাধারণ, অদ্ভুত। গোটা বাড়িটি তৈরি করা হয়েছে সম্পূর্ণ উলটো করে। একেবারে উলটপুরাণ। বাইরে থেকে দেখে মনে হবে যেন একটা বাড়ির কাঠামোকে উলটো করে রেখে দেওয়া হয়েছে। তবে, তাক লাগবে বাড়ির ভেতরে ঢুকলে।


বেডরুমের বিছানা থেকে ওয়াশরুমের কমোড, ফায়ারপ্লেস – সবই ফিট করা রয়েছে বাড়ির সিলিং-এ। সবই তো উলটো করে তৈরি। ড্রয়িংরুমের শোফাসেটটিও যেমন দেখে মনে হবে উপর থেকে ঝুলছে, তেমনি ডাইনিং টেবল-চেয়ার সবকিছুই এক। বাড়ির মধ্যে ঢুকে মনে হবে, আপনিই বোধকরি উলটোভাবে দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

তাইওয়ানের হুয়াশান ক্রিয়েটিভ পার্কে প্রদর্শনীর জন্য দু মাস ধরে এই বাড়িটি তৈরি করা হয়েছে। ৩,২৩০ স্কোয়্যার ফিট ফ্লোর এরিয়াজুড়ে তৈরি এই প্যাস্টেল পেইন্টের বাড়ি দেখতেই এখন উপচে পড়ছে ভিড়। বাড়িটি বাইরে থেকে দেখলে দেখা যাচ্ছে, একটি গাড়িও সেট করা রয়েছে বাড়ির গ্যারাজের সিলিং-এ। না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না। ২২ জুলাই পর্যন্ত বাড়িটি রাখা থাকবে ওই ক্রিয়েটিভ পার্কে। এর আগে একবার ঘুরে আসবেন নাকি তাইওয়ান?