ছোটাছুটি

শুরু হতেই অনুভূতি অন্য রকম

শশী লজের নান্দনিকতা চোখে পড়ে এখনো। ছবি: লেখক

মুক্তাগাছা রাজবাড়ি। ময়মনসিংহ শহর থেকে ১৬ কিলোমিটার দূরে এর অবস্থান। ছুটিছাঁটায় কোথাও বেড়াতে মন চাইলে চলে আসতে পারেন এখানে…লিখেছেন ফারুখ আহমেদ

বাড়িটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে দীর্ঘদিন। কিন্তু জরাজীর্ণ সে বাড়িটির কোনো ধরনের
সংস্কার সাধন করা হয়নি এখন পর্যন্ত।
বিশাল বাড়িটির দেখভাল করার জন্য আছেন মাত্র একজন। সেই একজন রশিদ মিয়াকে আবার সব সময়
পাওয়া যায় না। অনুমতি নেই, তবু কেউ কেউ জরাজীর্ণ বাড়িটির ছাদে বা কার্নিশের ওপর চড়ে বসেন। এখানে
কোনো গাইডের ব্যবস্থাও নেই। তবু দেখা হয়ে গেল একদল আলোকচিত্রীর সঙ্গে। স্রেফ বেড়াতে এসেছেন,
এমন মানুষও কম নন।
যে বাড়িটির কথা এতক্ষণ আপনাদের বলে চলেছি, সেটি হচ্ছে মুক্তাগাছা রাজবাড়ি। ময়মনসিংহ শহর থেকে
১৬ কিলোমিটার দূরে এর অবস্থান। ছুটিছাঁটায় কোথাও বেড়াতে মন চাইলে চলে আসতে পারেন এখানে।
ময়মনসিংহ শহর থেকে সময় লাগে আধা ঘণ্টার মতো। আর ঢাকা থেকে সাকল্যে চার ঘণ্টা। দিনে গিয়ে দিনেই
ফিরে আসা সম্ভব। মুক্তাগাছার জমিদারির বিশাল অংশ ময়মনসিংহ শহরে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে। এসব
নিদর্শনের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে শশী লজ (বর্তমান মহিলা টিচার্স ট্রেনিং কলেজ), লোহার কুঠি বা আলেকজান্ডার
ক্যাসল (বর্তমান টিচার্স ট্রেনিং কলেজ), সূর্যকান্ত হাসপাতাল (এস কে হাসপাতাল), রাজ রাজেশ্বরী পানির
ট্যাংক, শিবমন্দির, বিদ্যাময়ী স্কুল ও ময়মনসিংহ টাউন হল। তা ছাড়া ময়মনসিংহ শহরের অন্য দর্শনীয়
স্থানগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন সংগ্রহশালা, ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,
ময়মনসিংহ জাদুঘর, নজরুল স্মৃতি কেন্দ্র ও ব্রহ্মপুত্র নদ। একসঙ্গে এতগুলো অসাধারণ নিদর্শন ময়মনসিংহ
বেড়ানো সার্থক করে তোলে।

মুক্তাগাছার রাজবাড়ি

 

যাত্রা হলো শুরু
ঢাকা থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত রাস্তার যানজটে সবকিছু কেমন অস্থির মনে হবে। জাতীয় উদ্যান শুরু হতেই
অনুভূতি অন্য রকম। এখানকার সবুজ মনে অদ্ভুত অনুভূতি তৈরি করবে। বিড়ম্বনাও আছে, রাস্তাঘাট
মাঝেমধ্যেই ভাঙাচোরা। এখানে দীর্ঘদিন রাস্তা সম্প্র্রসারিত করার কাজ চলছে।
তাই ময়মনসিংহ শহরে আসতে তিন ঘণ্টা বা তার একটু বেশি সময় লাগতে পারে।এখানে একটু যাত্রাবিরতি
দিয়ে চলুন চলে যাই মুক্তাগাছা। মুক্তাগাছার পথে নামতেই আবার সেই অদ্ভুত অনুভূতি। এখানকার রাস্তা
দারুণ! পথের দুই পাশেই সবুজ। এভাবেই পুকুর-ডোবা, ধানখেত আর খোলা প্রান্তরের সবুজে চোখ মেলে দেখে
দেখে একসময় চলে আসবেন মুক্তাগাছা।

মুক্তাগাছা রাজবাড়ি
মুক্তাগাছার জমিদারির মোট অংশ ১৬টি। অর্থাৎ ১৬ জন জমিদার এখানে শাসন করতেন। মুক্তাগাছা
রাজবাড়িটির প্রবেশমুখে রয়েছে বিশাল ফটক। ভেতরে প্রবেশ করলে জীর্ণপ্রায় বাড়িটির অন্য রকম সৌন্দর্যে
চোখ জুড়িয়ে যাবে। প্রায় ১০০ একর জায়গার ওপর নির্মিত এই রাজবাড়িটি প্রাচীন স্থাপনাশৈলীর অনন্য
নিদর্শন।
শুরুতেই দেখা পাবেন একতলা একটি ভবনের। লোহার পাত আর কাঠের পাটাতন দিয়ে করা ছাদ চমৎকার! তা
ছাড়া লোহার পাতের নানা রকম নকশা এ বাড়ির চারপাশে আপনার দৃষ্টি এড়াবে না। এখানে একসময় ছিল
ঘূর্ণায়মান একটি রঙ্গমঞ্চ। দৃষ্টিনন্দন রাজ রাজেশ্বরী মন্দিরটির দেখা পাবেন রাজবাড়ির প্রবেশমুখেই।
রাজকোষাগার, টিন আর কাঠের তৈরি অসাধারণ এক-দোতলা রাজপ্রাসাদ, রানির অন্দরমহল। লম্বা লম্বা
করিডরগুলোও মুগ্ধতা জাগায়।
তা ছাড়া আরও আছে লাইব্রেরি, দরবার হল, কাচারিঘর, লক্ষ্মীপূজা আর দুর্গাপূজার ঘর। আর পেছনে রয়েছে
একটি গোপন সুড়ঙ্গ। মুক্তাগাছা রাজবাড়িটি পাশেই আরও দুটি রাজবাড়ি আছে। শহীদ স্মৃতি ডিগ্রি কলেজ এর
মধ্যে একটি। অন্য বাড়িটি ছিল সে সময়কার হাতিশালা। বর্তমানে এটি আর্মড ব্যাটালিয়ন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স
হিসেবে ব্যবহূত হচ্ছে। দেখা শেষ হলো মুক্তাগাছা রাজবাড়ি। এবার মুক্তাগাছার প্রসিদ্ধ গোপাল পালের মণ্ডার
দোকান ঘুরে মণ্ডা খেয়ে বাড়ির জন্য মণ্ডা নিয়েও যান।

লোহার কুঠি বা আলেকজান্ডার ক্যাসল

কীভাবে যাবেন
ঢাকা থেকে সরাসরি ময়মনসিংহ বাস সারা দিন চলাচল করে। মহাখালী থেকে চলা সেসব বাসের মধ্যে
অন্যতম হলো এনা, সৌখিন, নিরাপদ ও শামীম এন্টারপ্রাইজ। ভাড়া এসি ২৭০, নন-এসি ২৫০ টাকা।
ময়মনসিংহ থেকে মুক্তাগাছা বাস সার্ভিস রয়েছে। চাইলে মুমিনুন্নেসা মহিলা কলেজ মোড় থেকে
সিএনজিচালিত অটোরিকশায় চড়েও মুক্তাগাছা যেতে পারেন। মাথাপিছু ভাড়া পড়বে ২০ টাকার মতো।
ময়মনসিংহ-মুক্তাগাছা এক দিনে ভ্রমণ সারতে চাইলে নিজস্ব বাহন উত্তম। আর সময় নিয়ে গেলে ময়মনসিংহ
শহরে থাকার ভালো ব্যবস্থা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আমির ইন্টারন্যাশনাল আর হোটেল মুস্তাফিজ ইন্টারন্যাশনালের
ওপর আপনি ভরসা করতেই পারেন। আর খাবার নিয়ে কোনো চিন্তা নেই। প্রেসক্লাব ক্যানটিনের
মোরগ-পোলাওয়ের খুব নামডাক। আর আছে হোটেল ধানসিঁড়ি ও হোটেল সারিন্দা।

Facebook Twitter Google+ Pinterest
More
Reddit LinkedIn Vk Tumblr Mail
Facebook