ছোটাছুটি

​এই তরুণী পারলে আপনি কেন নন!

ভদ্র মোরা, শাস্ত বড়, পোষ-মান এ প্রাণ
বোতাম-আঁটা জামার নিচে শান্তিতে শয়ান ।
দেখা হোলেই মিষ্ট অতি, মুখের ভাব শিষ্ট অতি,
অলস দেহ ক্লিষ্ট গতি, গৃহের প্রতি টান,
তৈল-ঢালা স্নিগ্ধ তনু নিদ্রারসে ভরা,
মাথায় ছোট বহরে বড় বাঙালি-সন্তান ।

আরব বেদুইন হতে না পারলেও রবীন্দ্রনাথের এই আক্ষেপ ও বাক্যাবাণের বাঙালির সংজ্ঞা আমরা কিছুটা হলেও ঘুচিয়ে দিতে পারছি। তবু এখনো আমাদের অনেকের কাছে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার কথা শুনলে যেন জ্বর আসে। অথচ বাইরের পৃথিবীর মানুষ যেন সত্যিই বেদুইন যাযাবর হয়ে উঠছে। ঘরের ভেতরের আরাম ছেড়ে প্রকৃতিকে দেখার চ্যালেঞ্জ নিয়ে বেরিয়ে পড়েছে তারা। ক্যাসান্ড্রা দেল পেকোল এদেরই একজন।

পাহাড়, মরুভূমি, সমুদ্র, নদী — এই বিশ্বে যা যা দেখার থাকতে পারে, তার বেশিরভাগই স্বচক্ষে দেখে ফেলেছেন এই তরুণী। শুধু তাই নয়, সব থেকে কম সময়ের মধ্যে বিশ্বের প্রথম মহিলা হিসাবে ১৯৬টি দেশে ভ্রমণ করার রেকর্ড গড়তে চলেছেন ক্যাসান্ড্রা। গত বছর ১৫ জুলাই বিশ্ব ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন ২৭ বছর বয়সি এই মার্কিন তরুণী। এখনও পর্যন্ত ১৮১টি দেশে ঘোরা হয়ে গিয়েছে। এ ছাড়াও আরও ১১টি ছোট দেশ ঘুরেছেন তিনি। বাকি রয়েছে মাত্র ১৫টি দেশ। হাতে আরও ৪০ দিন। এর মধ্যে ঘুরে পেলতে পারলেই গড়বেন নতুন গিনেস রেকর্ডও।

ক্যাসান্ড্রা এই সফরের নাম দিয়েছেন ‘এক্সপিডিশন 196’। তিনি একজন শান্তি-দূত হিসাবে ভ্রমণ করছেন। ‘ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পিস থ্রু ট্যুরিজম’-এর হয়ে তিনি সারা বিশ্বে শান্তি সফর করছেন। তিনি শুধু ভ্রমণই করছেন না, তাঁর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে চোখ রাখলে সেই সফরের কিছু ঝলকও রাখছেন তাঁর ফলোয়ারদের জন্য। আপনারাও দেখুন সেই অবিশ্বাস্য সফরের কিছু টুকরো টুকরো অংশ।

travel3

Facebook Twitter Google+ Pinterest
More
Reddit LinkedIn Vk Tumblr Mail
Facebook